নৈশ বিদ্যালয় স্থাপনের জন্য আবেদন পত্র

Rate this post

নৈশ বিদ্যালয় স্থাপনের জন্য আবেদন পত্র

মনে কর, তােমার এলাকায় অধিকাংশ মানুষ দারিদ্র্যপীড়িত এবং অশিক্ষিত। এমতাবস্থায় গণশিক্ষা বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যে একটি নৈশ বিদ্যালয় স্থাপনের জন্য জেলা শিক্ষা অফিসারের নিকট একটি দরখাস্ত লেখ।

তারিখ :১২.০৬.২০২২

বরাবর

জেলা শিক্ষা অফিসার

মির্জাপুর, যশাের।

বিষয় : নৈশ বিদ্যালয় স্থাপনের জন্য আবেদন।

জনাব,

আমরা যশাের জেলার অন্তর্গত নড়াইল থানার মির্জাপুর গ্রামের স্থায়ী অধিবাসী। এই গ্রামের অধিকাংশ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করে। ফলে গ্রামের অধিকাংশ অশিক্ষিত মানুষ ভ্যান, রিকশা, কলকারখানা, কৃষিসহ বিভিন্ন পেশায় নিয়ােজিত। দারিদ্র্যপীড়িত অধিকাংশ মানুষ সকাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন কাজে মনােনিবেশ করে। জ্ঞানের অভাবে কর্মক্ষেত্র থেকে যথাযথ পারিশ্রমিক বুঝে নিতে তারা ব্যর্থ হয় এবং অনেকাংশেই প্রতারণার শিকার হয়। দারিদ্র্যবিমােচনের লক্ষ্যে অল্প বয়সে মাতাপিতা তাদের সন্তানকে কর্মে নিযুক্ত করে। এভাবে কালের ধারাবাহিকতায় গ্রামের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষকে অশিক্ষার আঁধারে ঘিরে ফেলেছে। কিন্তু অশিক্ষায় আবদ্ধ মানুষের মধ্যে অনেক পরে হলেও, সচেতনতার সৃষ্টি হচ্ছে। তারা আজ বুঝতে পারছে, অজ্ঞতার মূল কারণ হচ্ছে শিক্ষার অভাব। এজন্য তাদের মধ্যে শিক্ষা গ্রহণের প্রবণতা সৃষ্টি হয়েছে।

অতএব গ্রামের বৃহত্তম জনগােষ্ঠীকে অশিক্ষার আঁধার থেকে আলাের পথে উত্তরণের লক্ষ্যে সমস্ত দিনের কাজকর্ম শেষে রাতের বেলা শিক্ষা গ্রহণের সুযােগ সৃষ্টিতে একটি নৈশ বিদ্যালয় স্থাপনের ব্যবস্থা করে বাধিত করবেন।

বিনীত

এলাকাবাসীর পক্ষে,

মাে. হাসিবুল হাসান

মির্জাপুর, যশাের।

Leave a Comment