৩টি ‍উপায়ে মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম করুণ

Rate this post
মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম
মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম

অনলাইনে ইনকামের Online income পরের শব্দটিই হয়তো মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম শব্দটি সচারাচর অনেকে ব্যবহার করে থাকে। তবে বাস্তবিক অর্থে আপনার হাতে থাকা একটি স্মার্টফোন কিংবা মোবাইল ফোনটি দ্ধারাই অনলাইনে আয় বা ইনকাম করা সম্ভব। যদিও এটা অনেকেই জ্ঞাতার্থ কিন্তু অজানা রহস্যটি হলো কিভাবে ইনকাম করতে হয়! আর সেই কারণটিকেই ফোকাস করে আজকের আমাদের এই আর্টিকেলটি। আশা করি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়লে একজন নিউবি অথবা বিগেইনার খুব সহজেই একটি পরিষ্কার ধারণা পেয়ে যাবে যে, কিভাবে মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম করতে হয়। তাহলে চলুন, আলোচনা বিলম্বিত না করে, মূল আলোচনায় প্রবেশ করা যাক। ( সহজেই ফেজবুক একাউন্ট ভেরিফাই করুন এবং মোবাইলের আলো থেকে চোখ রক্ষা করুণ )

মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

যেহেতু আজকের আর্টিকেলের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হলো অনলাইনে ইনকামের বিষয়টি এবং সেটি মোবাইল দিয়ে, তাই আমরা এমন ৩টি উপায় সম্পর্কে জানবো, যেগুলো দ্ধারা আপনিও ইচ্ছা করলে শুরু থেকেই কিছু টাকা আয় করতে পারেন। সেই ৩টি উপায় হলো-

  • আর্টিকেল বা কন্টেন্ট লিখা
  • ইমেইজ বা ফটো বা ছবি ইডিট করে
  • ইউটিউবিং করে

মূলত এখানে ৩টা ভিন্ন ক্যাটাগরির ৩টি উপায়কে কিংবা কাজের ক্ষেত্রকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। আশা করি উপরোক্ত যেকোনো একটি কে যদি নিজের মধ্যে আতস্ত করতে পারেন, তাহলে খুব তাড়াতাড়িই আপনি অনলাইনে কাজ করে স্মার্ট একটি স্যালারি বা টাকা আয় করতে পারেন।

এতোক্ষণ তো আমরা জানলাম ৩টি উপায় সম্পর্কে। তাহলে এগুলোর মাধ্যমে আপনি কিভাবে কাজ করবেন? কোথায় কাজ করবেন? কিংবা কেমন স্কিল বা দক্ষতা থাকা দরকার? চলুন তাহলে এসব উত্তরগুলো ধীরে ধীরে জানা যাক।

আর্টিকেল বা কন্টেন্ট লিখে টাকা আয়

আর্টিকেল বা কন্টেন্ট লিখা বলতে আপনি কি বোঝেন? সহজেই বললে, কোনো একটি বিষয়কে কেন্দ্র করে সেই বিষয়ে লেখাকেই মূলত আর্টিকেল লিখা বলে। উদাহরণ সরূপ আপনি কোনো একটি ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে যোগ হলেন এবং আর্টিকেল লিখার ‍উপর একটি কাজ পেলেন, আর সেটি হলো “কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায়?” সেটির উপর। এখন আপনি যদি এই কিওয়ার্ড কে কেন্দ্র করে সম্পূর্ণ গাইডলাইন নিয়ে একটি লিখা লেখেন, তাহলে সেটিই হলো আর্টিকেল। ঠিক উদাহরণের ন্যায়, মার্কেটগুলোতে প্রচুর আর্টিকেল লিখার কাজ পাওয়া যায়। আপনি যদি ইংলিশ ভাষায় পারদর্শী হয়ে থাকেন, তাহলে আপনি ইংলিশে কন্টেন্ট লিখে তা সার্ভিস দিতে পারেন। আবার যদি আপনি বাংলা ভাষায় বেশ দক্ষ হয়ে থাকেন এবং শব্দ চয়নে দক্ষতা পদর্শণ করতে পারেন, তাহলে আপনি বাংলা আর্টিকেল লিখেও সার্ভিস প্রোভাইড করতে পারেন। আশা করি আর্টিকেল লিখা কি এবং কিভাবে তা সার্ভিস দিবেন, সে বিষয়ে মোটামোটি একটি সঠিক ধারণা পেয়েছেন। এবার প্রশ্ন আসতে পারে কোথায় আপনারা সার্ভিসটি দিবেন? বর্তমানে ইন্টারনেটে প্রচুর পরিমাণ প্লাটফর্ম আছে, যেগুলোতে আর্টিকেল লিখে সার্ভিস দিতে পারেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় ফ্লাটফর্ম হচ্ছে ফাইবার, আপওয়ার্ক। তবে এগুলোতে আপনি সবচেয়ে বেশি কাজ পাবেন ইংলিশ আর্টিকেল লিখার উপর। বাংলাদেশে বেশ অনেকগুলো প্লাটফর্ম পাবেন। সেগুলো নিয়ে আরেকটি আর্টিকেলের মধ্যে ইনডেপ্ত লিখবো।

ইমেইজ বা ফটো বা ছবি ইডিট করে টাকা আয়

বর্তমান সময়ে সবচেয়ে বেশ জনপ্রিয় একটি অনলাইনের কাজ হলো ছবি এডিট করা। প্রায় অনলাইনে থাকা সবগুলো প্লাটফর্মেই এটি বেশ জনপ্রিয় এবং সর্বোচ্চ আয় করা একটি ক্যাটাগরি। আপনি যদি সুন্দর ও নিখুতভাবে ছবি এডিট করতে পারেন, তাহলে আপনি সহজেই ইমেইজ বা ফটো এডিট করতে পারেন এই সব প্লাট ফর্মগুলোতে এবং অর্থও আয় করতে পারেন। ফাইবারে প্রচুর পরিমাণে চাহিদা রয়েছে ছবি ইডিট করার উপর। সুতরাং আপনি যদি ফটোশপ কিংবা এরকম এডিট করার সফটওয়্যারগুলোর কাজ বেশ ভালোভাবে পেরে থাকেন, তাহলে আজই আপনি সেই সাইটগুলোতে একাউন্ট তৈরি করে সার্ভিস প্রোভাইড করে টাকা আয় করুন।

ইউটিউবিং করে টাকা আয়

বর্তমান সময়ে ট্রেন্ডি একটি অনলাইন ভিত্তিক টাকা আয় করার উপায় হলো ইউটিউবিং কিংবা ফেজবুকিং। নাম ভিন্ন হলেও কাজটি কিন্তু একই। আপনি যদি সিম্পলি একটু ইউটিউবে সার্চ করেন যে, ইউটিউবের মাধ্যমে কিভাবে ইনকাম বা আয় করা যায়, তাহলেই সম্পূর্ণ  উত্তর পেয়ে যাবেন আশা করি। প্রায় টার্মগুলো কাছাকাছিই। ফেজবুকিং এবং ইউটিউবিং। আপনি যেকোনো একটি নিসের উপর ইউটিবে প্রতিনিয়ত ভিডিও দিতে পারেন কিংবা আপনি যে বিষয়ে অভিজ্ঞ। আপনি যদি গান গাইতে পারেন, তাহলে আপনি গান গেয়ে গেয়ে ইউটিউবে যে রেকর্ডকৃত গানটি আপলোড দিতে পারেন। মনিটাইজেশন এর মাধ্যমে আপনিও বেশ ভালো পরিমাণ একটি টাকা আয় করতে পারেন খুব সহজেই। এভাবেই মূলত আপনি ইউটিউবের মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারেন।

মূলত উপরের বিষয়গুলোই হলো আজকের আর্টিকেলের মূল বিষয়। যদি আপনি সত্যিকার অর্থে অনলাইনে কাজ করার ক্ষেত্র জানতে চেয়ে ইন্টারনেটে সার্চ দিয়ে থাকেন এবং উক্ত আর্টিকেলটি পড়ে থাকেন, তাহলে আশা করি আজকের আর্টিকেলটি দ্ধারা আপনি বেশ ভালোভাবে উপৃকত হতে পেরেছেন। আর উপরোক্ত ৩টি উপায় আপনি আপনার হাতে থাকা মোবাইল ফোন দিয়েই সম্পাদন করতে পারেন।

মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম সম্পর্কে আরো জানতে

About রবীন্দ্র

Leave a Reply

Your email address will not be published.