ফেসবুক ভেরিফাই করার নিয়ম | ভেরিফাই করার সুবিধাগুলো

ফেসবুক ভেরিফাই করার নিয়ম

আপনার ফেজবুক আইডিটি সুরক্ষিত রাখার জন্য ফেজবুক আইডি ভেরিফাই facebook id verify করার বিকল্প অন্য কিছু নেই। বর্তমানে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে ফেজবুক ব্যবহারকারীর  সংখ্যা ব্যাপকহারে দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। সেই সাথে ফেক আইডি বা ফেক প্রোফাইলের সংখ্যাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। ধরুন আপনার একটি ফেজবুক একাউন্ট আছে। কিন্তু এখন দেখছেন আপনার নাম, ছবি এবং-কি জন্ম তারিখ মিল রেখে আরো অনেক ফেজবুক আইডি বর্তমানে ইন্টারনেটে সচল অবস্থায় আছে। ( Search Engine সম্পর্কে জানুন এবং স্ক্রিণের আলো থেকে চোঁখ রক্ষা করুন )

কিন্তু ফেজবুক কর্তৃপক্ষ সবসময় চায় যাতে আসল একাউন্ট মালিকের একাউন্ট রেখে বাকি ফেইক একাউন্টগুলো বন্ধ করে দিতে। যখন ফেজবুক কর্তৃপক্ষ এমন পদক্ষেপ নিবে, তখন দেখা যাবে আপনার আসল একাউন্টটিও বন্ধ হয়ে গেছে বা বন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। এমতোবস্থায় আপনার অর্জিনাল আইডিটি সুরক্ষিত রাখার জন্য আপনার আইডি বা একাউন্টটি  ভেরিফাই facebook account verify করার গুরুত্ব ব্যাপক হারে বেড়ে যায়। যেমনটি ভাবে ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করা যায় ঠিক তেমনি ফেসবুক ভেরিফাই করার নিয়ম কে কাজে লাগিয়ে ফেজুবক ভেরিফাই করে নানা রকম সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারি।ফেজবুক ভেরিফাই কী? – What is facebook verification ?

ফেজবুক ভেরিফাই হলো মূলত আপনার সঠিক তথ্য যা আপনার ফেজবুক একাউন্ট খোলার সময় সরবরাহ বা দিয়েছেন, সেসব আপনার এনআইডি কার্ডের সাথে মিল আছে এবং তা ফেজবুক কর্তৃপক্ষকে নিশ্চিত করার মাধ্যমে আইডিকে সুরক্ষিত করা।

এখন চলুন জানা যাক কীভাবে সঠিক নিয়মে নির্ভুল ভাবে আপনার অর্জিনাল ফেজবুক একাউন্টটি বা আইডিটি ২০২১ সালের নিয়ম অনুযায়ী ভেরিফাই করবেন। এখানে অনেকগুলো নিয়মে ফেজবুক ভেরিফাই করার জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে আমি এখানে মাত্র একটি নিয়ম দেখাচ্ছি যেটা গুগল ক্রোম দিয়ে।

ফেসবুক ভেরিফাই করার সহজ নিয়ম

ফেসবুক ভেরিফাই করার সহজ নিয়ম

বর্তমানে ফেসবুক জগতে সবাই চায় সুরক্ষিত থাকার। তাই ফেসবুক ভেরিফাই করার নিয়ম জানতে অনেকের মাঝে আগ্রহ দেখা যায়। বর্তমানে সময়ে সবাই চায় সাইবার জগতে সুরক্ষিত থাকার। যদিও পরোক্ষভাবে এই অনলাইন সাইবার জগতে কেউই মূলত সুরক্ষিত নয়। তারপরও আমরা সবাই চাই যাতে আমাদের বিচরণকৃত প্লাটফর্মগুলোতে অন্তত আমরা নিরাপদে থাকতে পারি। বর্তমানে সবচেয়ে বেশি আমরা ফেসবুক ব্যবহার করে থাকি। যে কারণে এখন যদি আমরা ফেজবুকে সুরক্ষিত থাকতে চেষ্টা করি, তাহলে আমাদেরকে প্রথমে আমাদের ফেজবুকটি ভেরিফাই করে নিতে হবে। এখন অনেকে ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে থাকে আবার অনেকে ফেসবুক পেজ ব্যবহার করে থাকে। মূলত ফেজবুক কর্তৃপক্ষ ফেসবুক আইডি ও পেজ ভেরিফাই করার নিয়ম সহজ করে দিয়েছে এবং আজকের আর্টিকেলে আমরা দুইভাবে ফেসবুক ভেরফাই করার নিয়ম জানবো। সেগুলো হলো-

  • ফেসবুক আইডি ভেরিফাই করার নিয়ম
  • ফেসবুক পেজ ভেরিফাই করার নিয়ম

মূলত এই দুটি নিয়ম জানাই যথেষ্ট আজকের আমাদের এই আর্টিকেলে। এখান প্রায় অধিকাংশের ফেসবুক আইডি রয়েছে। তাই এখানে কিভাবে ফেসবুক আইড ভেরিফাই করার নিয়মটিা আগে জানবো। এছাড়াও আজকের আমরা দেখবো কিভাবে ফেজবুক পেজ ভেরিফােই করতে হয়। আলোচনার সুবিধার্থে উক্ত আর্টিকেলে প্রথমে জানবো ফেজবুক আইডি ভেরিফাই করার নিয়ম এবং তারপর জানবো ফেজবুক পেজ ভেরিফাই করার নিয়ম। চলুন তাহলে আলোচনা দীর্ঘায়িত না করে ফেজবুক ভেরিফাই করার নিয়ম সম্পর্কে স্টেপ বাই স্টেপ জানা যাক।

ফেসবুক আইডি ভেরিফাই করার সঠিক নিয়ম – Proper way of facebook id verification

ফেসবুক আইডি ভেরিফাই করার সঠিক নিয়ম

বর্তমান যুগে যুব-সমাজের নিকট সবচেয়ে ট্রেন্ডি বিষয় হলো ফেজবুক আইডি ভেরিফাই করা। কিন্তু এর মধ্যে সংখ্যাঘরিষ্ঠ সাধারণ মানুষই জানে না যে কীভাবে একটি ফেজবুক আইডি ভেরিফাই করতে হয়! তাদের জন্যই আজকের এই আর্টিকেলটি। সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার পর আশা করি এখন থেকে আপনি নিজেই আপনার ফেজবুক আইডিটি খুব সহজেই ভেরিফাই করতে পারবেন। যেহেতু আমাদের অধিকাংশের হলো ফেজবুক আইডি অর্থাৎ অধিকাংশ আমরা ফেজবুক আইডি ব্যবহার করে থাকি, তাই চলুন জানা যাক ফেসবুক আইডি ভেরিফাই করার নিয়ম। ফেসবুক আইডি ভেরিফাই করার নিয়ম হলো-

  • প্রথমে আপনি একটি নোটপেডে বা যেকোনো উপায়ে আপনার ফেজবুক আইডির প্রোফাইল লিংকটি করি বা লেখে রাখুন।
  • এবার আপানার মোবাইল বা পিসির যেকোনো একটি ব্রাউজার ওপেন করুণ। এক্ষেত্রে আমি সাজেস্ট করবো গুগল ক্রোম ব্রাউজারটি ওপেন করুন।
  • এবার গুগল ক্রোমের সার্চ বক্সে লিখুন “facebook verified” এবং সার্চ করুন।
  • সার্চ রেজাল্টগুলোর প্রথমটায় ক্লিক করে প্রবেশ করুন অথবা এখানে ক্লিক করুন।
  • এখানে দেখুন অনেকগুলো অপশান দেওয়া আছে। এখান থেকে চলে যান “How do I request a verified badge?” অপশানে।
  • এখানে ক্লিক করলে কীভাবে আপনার ফেজবুক আইডি ফেরিফাই facebook id verification করবেন তার একটি দিক নির্দেশনা দেওয়া আছে। এর মধ্যে দেখুন উপরের লাইনে দেওয়া আছে “contact form”. এই লেখায় ক্লিক করুন।
  • এবার ” Request a Blue Verification Badge” নামে একটি নতুন ট্যাব ওপেন হবে।
  • এখান থেকে আপনাকে আপনার ফেজবুক ভেরিফিকেসন এর কাজগুলো করতে হবে।
  • এখানে দেখুন “verification type” দিয়ে ২টি অপশান দেওয়া আছে। একটি হলো page অন্যটি হলো profile. এখান থেকে আপনি যদি আপনার profile অর্থাৎ ফেজবুক আইডিটি ভেরিফাই করতে চান, তাহলে Profile টি চেক মার্ক করুণ।
  • এরপর নিচের অপশানটি “ select a category for the page or profile” এ আপনার পছন্দ অনুযায়ী বা আপনার সাথে যে অপশানটি যায়, ঐটি সিলেক্ট করুণ। এক্ষেত্রে আমি সাজেস্ট করবো
  • “ entertainment “ সিলেক্ট করুণ।
  • এবার নিচের অপশানটি “ which country is this entity from?” এ আপনার দেশের নাম অর্থাৎ Bangladesh লিখে দিবেন।
  • এবার আপনার একটি আইডেন্টি ফাইল Identity file or image upload বা ছবি জমা বা আপলোড দিতে হবে। এখানে আপনি আপনার এনআইডি, ড্রাইভিং লাইসেন্স বা পাসপোস্ট দিতে পারেন। যদি এনআইডি দিতে চান, তাহলে একটি ছবির মধ্যে এনআইডির দুই পাশের ছবির হার্ড কপি থাকতে হবে।
  • এবার একটু নিচের দিকে স্ক্রল করে আসুন এবং দেখেন কয়েকটা খালি বক্স আছে। এখান থেকে সর্বপ্রথম খালি বক্স অর্থাৎ “ Please share why this facebook page or profile should be verified” এ আপনার ফেজবুক ভেরিফাই করার যথেষ্ট কারণগুলো উল্লেখ করুণ। তবে আপনাদের সুবিধার্থে আমি নিম্নে একটি ইমেজ দিয়ে দিলাম। এ লেখাগুলো লেখতে পারেন।
  • ব্যাস, এখন আপনি নিচে স্ক্রল করুণ এবং সেন্ড করে দিন।
Facebook Verification system

এবার ফেজবুক কর্তৃপক্ষ আপনার ফেজবুক আইডিটি অবজারবেসন facebook identity observation করবে। তাদের  অবজারবেসনের পর যদি তারা মনে করে আপনার ফেজবুক একাউন্টটি ভেরিফাই করা যাবে, তাহলে কয়েকদিনের মধ্যে আপনার আইডি বা একাউন্টটি ভেরিফাই হয়ে যাবে। আর এভাবেই আপনি ফেজবুক একাউন্ট বা আইডি ভেরিফাই করতে পারেন।

ফেজবুক পেজ ভেরিফাই করার নিয়ম

ফেজবুক পেজ ভেরিফাই করার নিয়ম

ফেজুবক আইডির ন্যায় একই ভাবে যারা চাচ্ছেন আপনার প্রোফাইলের আন্ডারে থাকা ফেজবুক পেজ ভেরিফাই করবেন, তাদের জন্যও এই পোস্টটি। যদিও এখানে ফেজবুক আইডি ভেরিফাই করার নিয়ম সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখানে ফেজবুক আইডি এবং ফেজবুক পেজ ভেরিফাই করার নিয়ম মোটামোটি একই নিয়মে। এখানে “verification type” থেকে Page সিলেক্ট করে দিবেন। আর বাকি নিয়মটা উপরের দেখানো উপায় ফলো করলেই এনাফ। এভাবেই ফেজবুক আইডি এবং ফেজবুক পেজ ভেরিফাই করতে হয়। তারপরও অনেকের সুবিধার্থে ফেসবুক পেজ ভেরিফাই করার নিয়মটা দেখিয়ে দিচ্ছি। ফেসবুক পেজ ভেরিফাই করার নিয়ম হলো-

  • প্রথমে আপনি একটি নোটপেডে বা যেকোনো উপায়ে আপনার ফেজবুক আইডির প্রোফাইল লিংকটি করি বা লেখে রাখুন।
  • এবার আপানার মোবাইল বা পিসির যেকোনো একটি ব্রাউজার ওপেন করুণ। এক্ষেত্রে আমি সাজেস্ট করবো গুগল ক্রোম ব্রাউজারটি ওপেন করুন।
  • এবার গুগল ক্রোমের সার্চ বক্সে লিখুন “facebook verified” এবং সার্চ করুন।
  • সার্চ রেজাল্টগুলোর প্রথমটায় ক্লিক করে প্রবেশ করুন অথবা এখানে ক্লিক করুন।
  • এখানে দেখুন অনেকগুলো অপশান দেওয়া আছে। এখান থেকে চলে যান “How do I request a verified badge?” অপশানে।
  • এখানে ক্লিক করলে কীভাবে আপনার ফেজবুক আইডি ফেরিফাই facebook id verification করবেন তার একটি দিক নির্দেশনা দেওয়া আছে। এর মধ্যে দেখুন উপরের লাইনে দেওয়া আছে “contact form”. এই লেখায় ক্লিক করুন।
  • এবার ” Request a Blue Verification Badge” নামে একটি নতুন ট্যাব ওপেন হবে।
  • এখান থেকে আপনাকে আপনার ফেজবুক ভেরিফিকেসন এর কাজগুলো করতে হবে।
  • এখানে দেখুন “verification type” দিয়ে ২টি অপশান দেওয়া আছে। একটি হলো page অন্যটি হলো profile. এখান থেকে আপনি যদি আপনার Page অর্থাৎ ফেজবুক আইডিটি ভেরিফাই করতে চান, তাহলে Page টি চেক মার্ক করুণ।
  • এরপর নিচের অপশানটি “ select a category for the page or profile” এ আপনার পছন্দ অনুযায়ী বা আপনার সাথে যে অপশানটি যায়, ঐটি সিলেক্ট করুণ। এক্ষেত্রে আমি সাজেস্ট করবো
  • “ entertainment “ সিলেক্ট করুণ।
  • এবার নিচের অপশানটি “ which country is this entity from?” এ আপনার দেশের নাম অর্থাৎ Bangladesh লিখে দিবেন।
  • এবার আপনার একটি আইডেন্টি ফাইল Identity file or image upload বা ছবি জমা বা আপলোড দিতে হবে। এখানে আপনি আপনার এনআইডি, ড্রাইভিং লাইসেন্স বা পাসপোস্ট দিতে পারেন। যদি এনআইডি দিতে চান, তাহলে একটি ছবির মধ্যে এনআইডির দুই পাশের ছবির হার্ড কপি থাকতে হবে।
  • এবার একটু নিচের দিকে স্ক্রল করে আসুন এবং দেখেন কয়েকটা খালি বক্স আছে। এখান থেকে সর্বপ্রথম খালি বক্স অর্থাৎ “ Please share why this facebook page or profile should be verified” এ আপনার ফেজবুক ভেরিফাই করার যথেষ্ট কারণগুলো উল্লেখ করুণ। তবে আপনাদের সুবিধার্থে আমি নিম্নে একটি ইমেজ দিয়ে দিলাম। এ লেখাগুলো লেখতে পারেন।
  • ব্যাস, এখন আপনি নিচে স্ক্রল করুণ এবং সেন্ড করে দিন।

মূলত উপরোক্ত উপায়ে বা নিয়মে আপনি খুব সহজেই আপনার ফেসবুক আইড এবং পেজ টিকে খুব সহজেই ভেরিফাই করতে পারেন।

ফেজবুক ভেরিফাই করার শর্তাবলি – Terms of verifying Facebook

  • অবশ্যই আপনার আইডিটি টু-ভেরিফিকেশন two verification factor চালু রাখতে হবে।
  • পূর্বে কোনো রকম ফেজবুক রুল ব্রেক করা থাকলে তা ডিলিট করতে হবে।
  • এনআইডির নামের সাথে হুবহু ফেজবুক আইডির নামের Facebook id name মিল থাকতে হবে।
  • এনআইডির জন্ম সাল, তারিখ, মাসের সাথে ফেজবুক একাউন্টে দেওয়া তথ্যগুলো হুবহু মিল থাকতে হবে।

ফেজবুক আইডি ভেরিফাই করার সুবিধা – Advantage of facebook id verification

  • ফেজবুক ভেরিফাই এর মাধ্যমে আপনাকে কেউ ফেইক রিপোর্ট Facebook fake report দিলে ফেজবুক কর্তৃপক্ষ তা গ্রহণ করবে না। ফলে আইডি সুরক্ষা পাবে।
  • ফেইক আইডিগুলো কে ফেজবুক কর্তৃপক্ষ বন্ধ করে দিবে।
  • দিন দিন ফলোয়ার সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে।
  • আইডি সার্চে আপনার ফেজবুক একাউন্ট বা আইডিটি সবার শীর্ষে থাকবে।
  • ফেজবুকের নতুন নতুন ফিচারগুলো উপভোগ করতে পারবেন।
  • এছাড়া আরো অনেকগুলো সুবিধা পাওয়া যায় ফেজবুক ভেরিফাই করার মাধ্যমে।

ফেজবুক ভেরিফাই করতে কী কী দরকার বা প্রয়োজন?

ফেজবুক ভেরিফাই করতে বেশি কিছু প্রয়োজন নেই। শুধু মাত্র এন আই ডি কার্ডের ছবি, প্রোফাইলের লিংক, দেশের নাম, এবং কেন আপনার আইডিটি ফেরিফাই করা উচিত তার যথেষ্ট সংক্ষিপ্ত একটা ব্যাখ্য। এগুলো হলেই যেকেউ একজন ফেজবুক ব্যবহারকারী a user of facebook খুব সহজেই ৩-৫মিনিটের ভিতর ফেজবুক আইডি ফেরিভাই করার জন্য আবেদন করতে পারে everyone can apply for facebook id verification.ফেজবুক আইডি ভেরিফাই করা কী আমাদের জন্য ক্ষতি?

মোটেও না। বরং ফেজবুক আইডি ভেরিফাই করার মাধ্যমে আমরা আমাদের আইডিকে পূর্বের থেকে আরো সুরক্ষিত করতে পারবো।

ফেজবুক আইডি ভেরিফাই সম্পর্কে আরো জানতে দেখুন

About রবীন্দ্র

Leave a Reply

Your email address will not be published.